Home | অপরাধ | দশ বছর সংসার করে ২০ লাখ টাকা নিয়ে উধাও স্বামী

দশ বছর সংসার করে ২০ লাখ টাকা নিয়ে উধাও স্বামী

জর্ডানে একই কারখানায় কাজ করতেন সিরাজগঞ্জের নাজমা খাতুন (৩০) ও বগুড়ার শিবগঞ্জের তাহেরুল ইসলাম (৩২)। মাওলানা ডেকে নাজমাকে বিয়ে ১০ বছর সংসারও করেছেন তাহেরুল।

সম্প্রতি বাড়ি করার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিয়ে তাহেরুল শিবগঞ্জের চন্দনপুর গ্রামের বাড়িতে পালিয়ে আসেন বলে অভিযোগ করেন নাজমা।

অনেক সন্ধান করে বাড়িতে গেলেও ওই নারীকে তাড়িয়ে দিয়েছেন তাহেরুলের আত্মীয়-স্বজনরা। বাধ্য হয়ে তিনি রোববার দুপুরে শিবগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে তাহেরুলের বাড়িতে কাউকে পায়নি। অবশ্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে অভিভাবকরা পুলিশের কাছে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা শিবগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোকাম্মেল জানান, তাদের বিয়ের কাবিননামা নেই। সমস্যার সমাধানে শুক্রবার দু’পক্ষকে থানায় ডাকা হয়েছে।

নাজমা জানান, তিনি আগে ঢাকায় পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। ২০০৬ সালে জর্ডানে গিয়ে একটি বেসরকারি পোশাক কারখানায় চাকরি নেন। সেখানে সহকর্মী বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার আটমুল ইউনিয়নের চন্দনপুর গ্রামের মৃত আবদুল কুদ্দুসের ছেলে তাহেরুল ইসলামের সঙ্গে পরিচয় হয়। একই কারখানায় কাজ করায় দু’জনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

তিনি দাবি করেন, গত ২০০৭ সালে স্থানীয় মাওলানার মাধ্যমে বিয়ে পড়িয়ে তারা দাম্পত্য জীবন শুরু করেন। দেশে ফিরে তাহেরুল তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে করে ঘরে তুলে নেয়ার কথা দেন।

নাজমা বলেন, কিছুদিন আগে বাড়ি করার জন্য তার কাছ থেকে টাকা নিয়ে তাহেরুল শিবগঞ্জের চন্দনপুর গ্রামে মামার বাড়ির কাছে জায়গা কেনেন। গত কয়েক বছরে তাহেরুল তার উপার্জিত প্রায় ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন।

তিনি জানান, গত ৭ নভেম্বর তাহেরুল দেশের বাড়িতে ফিরে আসেন। এরপর ২২ নভেম্বর তিনিও (নাজমা) সিরাজগঞ্জে বাপের বাড়িতে ছুটিতে আসেন। ফেরার পর থেকে তাহেরুল তার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যায়।

নাজমা বলেন, গত ২৩ নভেম্বর বিকেলে ভাতিজা রাজু মিয়া ও আনিসুর রহমানকে সঙ্গে নিয়ে তিনি বগুড়ার শিবগঞ্জের চন্দনপুর গ্রামে এলে জানতে পারেন, ওটা তাহেরুলের মামা নেহারুল ইসলামের বাড়ির ঠিকানা।

তিনি বলেন, বিষয়টি মামা শ্বশুর নেহারুল ইসলামকে জানালে তিনি তাকে উল্টো হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেন। পরে আটমুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোজাফফরকে জানালে তিনি এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেন। বর্তমানে তাহেরুল দ্বিতীয় বিয়ের চেষ্টা করছেন বলে জানান নাজমা।

তিনি বলেন, তাহেরুল তাকে দেশে ফিরে ধুমধামের সঙ্গে বিয়ে করে ঘরে তোলার আশ্বাস দিয়েছিলেন। মাওলানা দিয়ে কলেমা পড়িয়ে গত ১০ বছর সংসার করেছেন। কাউকে না জানিয়ে তাহেরুলকে বিয়ে ও উপার্জনের সর্বস্ব দেয়ায় বাবা-মা তাকে আশ্রয় দিচ্ছেন না। স্বামীও তাকে ঘরে নিচ্ছেন না।

নাজমা বলেন, সংসার ফিরে না পেলে তার আত্মহত্যা ছাড়া আর কোনো পথ থাকবে না। তাই তিনি প্রতিকার পেতে রোববার দুপুরে বগুড়ার শিবগঞ্জ থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোকাম্মেল জানান, অভিযোগ পাবার পর তাহেরুলের বাড়িতে গিয়েছিলেন। তার বাবা-মা নেই। তিনি মামা নেহারুলের সংসারে বড় হন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা পালিয়ে যান।

তবে তিনি বলেন, বিষয়টি সুরাহা করতে তাহেরুলের মামা আগামী শুক্রবার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন। ওইদিন দু’পক্ষকে নিয়ে থানায় বসা হবে। সমাধান না হলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments

comments

About admin

Check Also

চাকরি হারাতে পারেন ডিবি পুলিশের ২৪ সদস্য

বিনা ওয়ারেন্টে ব্যবসায়ীদের তুলে এনে নির্যাতন ও পরে অর্থ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ২৪ সদস্যের বিরুদ্ধে। এই তালিকায় ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার থেকে শুরু করে নিচের দিকের ২৪ জন সদস্য রয়েছেন। ঘটনাটি তদন্ত করতে ডিবির যুগ্ম কমিশনারকে প্রধান করে ৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। ডিবি পুলিশের হাতে নির্যাতিত ও পরে উৎকোচ দিয়ে মুক্ত ব্যবসায়ি বিল্লাল হোসেন জা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *