Home | আন্তর্জাতিক | একটি ফোনালাপে উদ্বিগ্ন ইসরাইল

একটি ফোনালাপে উদ্বিগ্ন ইসরাইল

ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলনের নেতাদের সঙ্গে ইরানের শীর্ষস্থানীয় সেনা কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলায়মানির টেলিফোনালাপে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে ইহুদিবাদী ইসরাইল।

ইহুদিবাদী পত্রিকা মা’রিভ জানিয়েছে, তেল আবিব মনে করছে, এই টেলিফোনালাপে জেনারেল সোলায়মানি হামাস ও ইসলামি জিহাদ আন্দোলকে ইসরাইল বিরোধী অভিযান পরিচালনার জন্য সবুজ সংকেত দিয়েছেন।

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কুদস বাহিনীর কমান্ডার জেনারেল সোলায়মানি সম্প্রতি হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন কাসসাম ব্রিগেড এবং ইসলামি জিহাদ আন্দোলনে সামরিক কমান্ডারদের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন।

এসব ফোনালাপে তিনি ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনের প্রতি সর্বাত্মক সহযোগিতা দিতে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করেন।

দৈনিক মা’রিভ লিখেছে, গাজা থেকে ইসরাইলি লক্ষ্যবস্তুতে অভিযান পরিচালনার জন্য হামাস ও জিহাদ আন্দোলনকে সবুজ সংকেত দিয়েছেন ইরানের কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার।

সম্প্রতি ইরাক ও সিরিয়ায় শেষ হওয়া দায়েশ বিরোধী অভিযানে দেশ দু’টিকে সামরিক উপদেশ দেয়ার গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন জেনারেল সোলায়মানি। মধ্যপ্রাচ্যের এই দু’টি দেশ থেকে উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশ নির্মূলে সোলায়মানি কেন্দ্রীয় ভূমিকা পালন করেন বলে মনে করা হয়।

এদিকে লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ সোমবার এক ভাষণে তৃতীয় ইন্তিফাদা গণআন্দোলন শুরু করার জন্য ফিলিস্তিনি যুবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ফিলিস্তিনি সংগঠনগুলো তার এ আহ্বানকে স্বাগত জানিয়েছে। এমনকি মাহমুদ আব্বাসের নেতৃত্বাধীন ফাতাহ আন্দোলনও হিজবুল্লাহ নেতার বক্তব্যে সন্তোষ প্রকাশ করেছে। ফাতাহ আন্দোলনের শীর্ষস্থানীয় নেতা আব্বাস জাকি বলেছেন, হিজবুল্লাহ মহাসচিবের আহ্বানে সাড়া দেবে ফাতাহ আন্দোলন।

হামাস কমান্ডার ও জে. সোলায়মানির ফোনালাপ; প্রস্তুতি জোরদারের আহ্বান

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র আল-কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলায়মানি বলেছেন, ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি তেহরানের সমর্থন অব্যাহত থাকবে।

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জেদ্দিন আল-কাসসামের কমান্ডারের সঙ্গে টেলিফোন আলাপে তিনি এ সমর্থনের কথা নতুন করে নিশ্চিত করেন। ফোনালাপে আইআরজিসি’র শীর্ষ পর্যায়ের কমান্ডার মধ্যপ্রাচ্যের প্রতিটি প্রতিরোধ আন্দোলনকে পবিত্র বায়তুল মুকাদ্দাস ও আল-আকসা মসজিদ রক্ষার জন্য তাদের প্রস্তুতি জোরদারের আহ্বান জানান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ফিলিস্তিনের বায়তুল মুকাদ্দাস (জেরুসালেম) শহরকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর মধ্যপ্রাচ্যে ছড়িয়ে পড়া প্রচণ্ড উত্তেজনার মধ্যে জেনারেল সোলায়মানি এ আহ্বান জানালেন।

এর আগে সোমবার হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জেদ্দিন কাসসাম ব্রিগেড ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিমান হামলার বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেয়ার অঙ্গীকার করেছে। গত শুক্রবার অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় হামাস যোদ্ধাদের ওপর ইসরাইল কয়েক দফা হামলা চালায় এবং এতে হামাসের দুই যোদ্ধা শহীদ ও ১৪ জন আহত হন।

কাসসাম ব্রিগেড এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘শত্রুরা চুক্তির নিয়ম লঙ্ঘন করে গাজার ওপর যে হামলা চালিয়েছে তার মূল্য পরিশোধ করতে বাধ্য হবে।’

হামাস আরো বলেছে, ‘আগামী দিনগুলোতে প্রমাণ হবে যে, শত্রুরা মারাত্মক ভুল করেছে এবং তারা হামাসের প্রতিশ্রুতি দেখতে পাবে।’ সূত্র: নয়াদিগন্ত

Comments

comments

About admin

Check Also

বরফজমা লেকের পানিতে উদোম গায়ে ডুব পুতিনের

ঢাকা: গোটা রাশিয়া যখন সাইবেরীয় বরফ ঠাণ্ডায় আক্রান্ত, তখন লেকের বরফ শীতল পানিতে উদোম গায়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *